x

আধুনিকতার এই জীবনে ল্যাপটপ একটি আবশ্যক ইলেকট্রনিক যন্ত্র। অফিসের কাজ থেকে শুরু করে আপনার নিজের কাজে আপনি যেই যন্ত্রটি ছাড়া চলতে পারবেন না তা হচ্ছে ল্যাপটপ। এটি এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় বহনের সুবিধার জন্য সবার কাছে এটি বেশ জনপ্রিয়। তবে ল্যাপটপেরও চাই যত্ন। ব্যবহারের কারণে এটিতেও মাঝে মাঝে দেখা দেয় ছোটখাটো সমস্যা। তবে এর সঠিক যত্ন পারে আপনার শখের ল্যাপটপটিকে যত্নে রাখতে।

ধুলোবালি
ধুলোবালি ল্যাপটপের প্রধান শত্রু। চেসিস ও ফ্যানে ধুলো জমে ল্যাপটপের কার্যকারিতা কমিয়ে দেয়। এতে যন্ত্রাংশ দ্রুত গরম হয়ে যায়। তাই নিয়ম করে ঝেড়ে-মুছে রাখুন। ব্যবহারের পর ব্যাগে ঢুকিয়ে রাখুন। বাজারে ল্যাপটপের উপযোগী স্ক্রিন প্রোটেক্টর, কিবোর্ড প্রোটেক্টর ও মিনি ভ্যাকুয়াম ক্লিনার পাওয়া যায়। এছাড়া ধুলোবালি পরিষ্কার করতে ক্যানড কম্প্রেসড এয়ার ব্যবহার করতে পারেন।

পরিষ্কারের সঠিক টুলস
ঘর পরিষ্কারের জন্য আমরা অনেক কিছু ব্যবহার করে থাকি। অনেকে একই জিনিস ব্যবহার করেন ল্যাপটপ ও পিসি পরিষ্কারে। এটা ঠিক নয়। ল্যাপটপ খুবই স্পর্শকাতর। বিশেষ করে এর স্ক্রিন ও টার্চ প্যাড। উপযুক্ত উপাদান ব্যবহার করা না হলে এগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হয়। তাই পরিষ্কারের সময় ল্যাপটপের উপযোগী স্ক্রিন ক্লিনার, স্প্রে ও কাপড় ব্যবহার করুন।

ঠান্ডা রাখুন
ল্যাপটপ অনেক বেশি তাপ উৎপন্ন করে, যা অনেক সময় ক্ষতিকারকও হতে পারে। ল্যাপটপ ঠান্ডা রাখতে বাজারে নানা দামের কুলার পাওয়া যায়। এ ছাড়া সবসময় সূর্যালোক, হিটার বা রেডিয়েটর থেকে দূরে রাখুন।

কানেক্টর ব্যবহারে সাবধানতা
ল্যাপটপের চারপাশে অনেক সকেট থাকে। এগুলো সাধারণত ইউএসবি, অডিও ও নেটওয়ার্ক কানেক্টর হিসেবে ব্যবহৃত হয়। যে কোনো ধরনের কানেক্টর ব্যবহারে সাবধানতা দরকার। অনেক সময় বেশি চাপ দিয়ে কানেক্টর ঢুকাতে গেলে সকেট ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

ধূমপান নিষেধ
ধূমপানে আপনি যে ধরনের রসায়ন গ্রহণ করেন, ল্যাপটপও তা গ্রহণ করে। তাই ধূমপান ল্যাপটপের স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। এর থেকে সৃষ্ট ধোঁয়া ও ধুলো ল্যাপটপের ক্ষতি করে।

রান্নাঘর থেকে দূরে
রান্নাঘর থেকে ল্যাপটপ দূরে রাখুন। নিকোটিনে যে ধরনের সমস্যা, একই ধরনের সমস্যা রান্নাঘরেও। এ ছাড়া রান্নাঘরের বাতাসে প্রচুর জলীয় বাস্প ও চর্বি থাকে, যা ল্যাপটপের স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। যারা রান্নাঘরে বসে কাজ করতে পছন্দ করেন বা করেত বাধ্য- তাদের উচিত এয়ার ভেন্টস ও ফ্যানের ব্যবস্থা করা। তবে সহজ সমাধান হলো রান্নাঘরে ল্যাপটপ নিয়ে না যাওয়া।